ইন্ড্রাস্টিতে ব্যবহৃত বিভিন্ন সার্কিট ব্রেকারের সাথে পরিচিতি

সুইচগিয়ার সিস্টেম আমাদের বাসাবাড়ি, ইন্ড্রাস্ট্রির পাওয়ার কন্ট্রোলিং এবং বৈদ্যুতিক দূর্ঘটনায় রক্ষাকবচ হিসেবে কাজ করে। সাধারণত সার্কিট ব্রেকার রক্ষাকবচ আর সুইচ এবং রিলে হুকুমের গোলাম। ইন্ড্রাস্ট্রিতে বিভিন্ন ধরনের সার্কিট ব্রেকার ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আজ ফ্যাক্টরিতে ব্যবহৃত বিভিন্ন ধরনের সার্কিট ব্রেকার নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা তুলে ধরব।

ইন্ডাস্ট্রিতে ব্যবহৃত বিভিন্ন সার্কিট ব্রেকার

ভি সি বি/VCB/Vaccum Circuit Breaker

  • একদম প্রথম থেকে আসা যাক। ইন্ড্রাস্ট্রিতে ব্যবহৃত 11/0.44 kV ট্রান্সফরমারের সাপ্লাই সাইডে ১১ কিলোভোল্ট লাইন প্রবেশ করে থাকে। সেটা কোম্পানি তার নিজস্ব জেনারেটর দিয়েও তৈরি করতে পারে কিংবা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি থেকেও নিতে পারে।
  • ইন্ড্রাস্ট্রিতে ব্যবহৃত মেশিনগুলো থ্রি-ফেজ অথবা সিংগেল ফেজ। তাই ইন্ড্রাস্ট্রিতে ২২০-৪০০ ভোল্ট দরকার।
  • তাই ১১ কেভি ভোল্টেজকে একটি স্টেপ ডাউন ট্রান্সফরমারের সাহায্যে ৩৮০/৪০০/৪৪০ ভোল্ট করে নেয়া হয়। আর এই ট্রান্সফরমার ইনডোর সাবস্টেশনে থাকে।
  • এই ট্রান্সফরমারের HT সাপ্লাই সাইডকে টার্ন অন করতে ভি সি বি (ভ্যাকুয়াম সার্কিট ব্রেকার) প্যানেল ব্যবহার করা হয়। একে HT প্যানেলও বলা হয়ে থাকে।
  • যে সার্কিটের ব্রেকার ভ্যাকুয়াম বা শূন্য মাধ্যমে সৃষ্ট আর্ক অবদমন করতে সক্ষম তাকে ভ্যাকুয়াম সার্কিট ব্রেকার বলে।
  • এই ব্রেকারের ভোল্টেজ রেটিং 3 থেকে 38 kV পর্যন্ত হয়ে থাকে।
  • ভ্যাকুয়াম সার্কিট ব্রেকারে এক ধরনের চেম্বার থাকে যা ভ্যাকুয়াম ইন্টারাপ্টার চেম্বার নামে পরিচিত।
  • এই ব্রেকারটি ৩০,০০০ ভোল্ট পর্যন্ত আর্ক প্রশমন করতে সক্ষম।
ভ্যাকুয়াম সার্কিট ব্রেকার
ভ্যাকুয়াম সার্কিট ব্রেকার

এ সি বি/ACB/Air Circuit Breaker

  • এবার লোড সাইডে প্রাপ্ত ৩৮০-৪৪০ ভোল্টকে পাঠানো হবে ইন্ড্রাস্ট্রির আরেক প্যানেলে। যার নাম এল টি প্যানেল বা লো টেনশন প্যানেল।
  • সাধারণত বাসবার ট্রাংকিং সিস্টেমের সাহায্যে এল টি ভোল্টেজকে প্যানেল চালান করা যায়। ক্যাবল দিয়েও এই কাজ করা সম্ভব। তবে মিতব্যয়ীতার কথা চিন্তা করলে বাসবারই উত্তম।
  • এই এল টি প্যানেলেও সার্কিট ব্রেকার, রিলে সুসজ্জিত থাকে।
  • এল টি প্যানেলে সাধারণত ৩৮০-৪৪০ ভোল্ট ইনকামিং লাইনের জন্য এয়ার সার্কিট ব্রেকার বা এ সি বি থাকে যা ট্রান্সফরমার থেকে আগত ৪৪০ ভোল্টের লাইনকে সুইচ আপ করে থাকে।
  • যে সার্কিট ব্রেকারে বাতাস ( বায়ু ) এর চাপ দিয়ে সার্কিট খোলা ও বন্ধ করার কাজ করা হয় , সেই সার্কিট ব্রেকার কে এয়ার সার্কিট ব্রেকার বলে।
  • এয়ার ব্লাস্ট সার্কিট  ব্রেকার আবার ৩ ধরণের হয়ঃ
  • (i) এক্সিয়েল ব্লাস্ট সার্কিট  ব্রেকার
    (ii) রেডিয়েল ব্লাস্ট সার্কিট  ব্রেকার
    (iii) ক্রস ব্লাস্ট সার্কিট  ব্রেকার

এম সি সি বি/MCCB/Moulded Case Circuit Breaker

  • এই Air Circuit breaker এর আউটপুট আবার পুনরায় বাসবারের মাধ্যমে Distribution Panel এর ব্রেকারে যায়।
  • এই Distribution Panel এ আবার MCCB ব্যবহার করা হয় যার আউটপুট ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন লোডে গিয়ে পৌছায়।
  • MCCB এর ফুল ফর্ম হচ্ছে Moulded Case Circuit Breaker।
  • MCCB সাধারনত কমার্শিয়াল বা ইন্ডাস্ট্রিয়াল ক্ষেত্রে বেশী ব্যবহার করা হয়।
  • এর কারেন্ট রেটিং সাধারণত ১০০০ এম্পিয়ারের নিচে।
  • অপারেটিং কারেন্ট সাধারনত ১০০ এম্পিয়ার থেকে ১০০০ এম্পিয়ার পর্যন্ত।

এম সি বি/MCB/Miniature Circuit Breaker

  • একজন লিডারের অধীনে যেমন অনেক কর্মী থাকেন তেমনিভাবে একটি সেন্ট্রাল distribution board এর অধীনে অনেকগুলো Sub distribution board (SDB) থাকে।
  • এই SDB থেকেই মূলত বিভিন্ন ফ্লোরের লোডে ওয়্যার কানেকশন দেয়া হয়।
  • এই প্যানেলেও একটি MCCB/Moulded Case Circuit Breaker থাকে যেখানে তিনটি লাইন সেন্ট্রাল DB/Distribution Board থেকে প্রবেশ করে থাকে।
  • তারপর এই এম সি সি বি এর আউটপুট চারটি বাসবারে সংযোগ করা হয়। এখান থেকে সুবিধামত লাইন নিয়ে সেগুলো এম সি বি বা মিনিয়েচার সার্কিট ব্রেকারের ইনপুট এ সংযোগ দেয়া থাকে এবং তার আউটপুট লাইনকে বিভিন্ন লোডের সাথে সংযুক্ত করা হয়।
  • MCB এর ফুল ফর্ম হচ্ছে Miniature Circuit Breaker।
  • MCB সাধারনত বাসা-বাড়িতে বেশী ব্যবহার করা হয়। এর কারেন্ট রেটিং সাধারণত ১০০ এম্পিয়ারের নিচে।
  • অপারেটিং কারেন্ট সাধারনত ০.৫ এম্পিয়ার থেকে ৬৩ এম্পিয়ার পর্যন্ত।
মিনিয়েচার সার্কিট ব্রেকার
মিনিয়েচার সার্কিট ব্রেকার

RCCB/Residual Case Circuit Breaker

  • RCCB core balanced current transformer এর নীতিতে কাজ করে।
  • RCCB কি পরিমাণ কারেন্ট ফেজ এবং নিউট্রালে প্রবাহিত হচ্ছে তা পর্যবেক্ষণ করে।
  • সাধারণত লোড ফেজ এবং নিউট্রাল টার্মিনালের সাথেই সংযুক্ত থাকে।
  • এখানে RCCB এর core balanced current transformer ফেজ থেকে কি পরিমাণ কারেন্ট নিউট্রাল দিয়ে সোর্সে ফিরে যাচ্ছে তা পর্যবেক্ষণ করে।
  • ধরলাম, ফেজ দিয়ে ২০ এম্পিয়ার কারেন্ট প্রবাহিত হচ্ছে।
  • এখন কোন কারণে কেউ শক খেল। তখন লিকেজ কারেন্ট প্রবাহিত হবে।
  • ধরলাম লিকেজ কারেন্ট ১০ এম্পিয়ার। অর্থাৎ ৩০ এম্পিয়ার বিদ্যুৎ ফেজ দিয়ে প্রবাহিত হবে কিন্তু নিউট্রাল দিয়ে প্রবাহিত হবে ২০ এম্পিয়ার।
  • কারণ ১০ এম্পিয়ার লিকেজ কারেন্ট আর্থিং হয়ে ভূমিতে চলে যাবে।
  • আর core balanced current transformer এই আনব্যালেন্সড কন্ডিশন সেন্স করে রিলে অপারেটিং কয়েলকে কার্যকর করে লোডকে মূল সোর্স থেকে আইসোলেট করে থাকে।
  • Industry তে লিকেজ কারেন্ট অবদমন করতে এই ব্রেকারের জুড়ি নেই।

MPCB/Motor Protection Circuit Breaker

  • একটি মোটর সুরক্ষা সার্কিট ব্রেকার বা এম পি সি বি হল একটি স্পেশালাইড ইলেকট্রিক্যাল ডিভাইস যা 60 হার্জ এবং 50 হার্জ উভয় ফ্রিকুয়েন্সিতে মোটর সার্কিটের সাথে ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • এটিতে বেশ কয়েকটি ফাংশন রয়েছে যা এটি মোটরগুলির জন্য একটি নিরাপদ বৈদ্যুতিক সরবরাহ ব্যবস্থা করে দেয় বৈদ্যুতিক ত্রুটি যেমন শর্ট সার্কিট, লাইন থেকে গ্রাউন্ড ত্রুটি এবং লাইন থেকে লাইন ত্রুটিগুলির বিরুদ্ধে সুরক্ষা প্রদান করে।
  • এমপিসিবি তার ব্রেকিং ক্ষমতার মধ্যে যে কোনও বৈদ্যুতিক ত্রুটি বাধাগ্রস্ত করতে পারে।
  • এতে ওভারলোড রিলে থাকে যার মাধ্যমে মোটর ওভারলোড সুরক্ষা প্রদান করে থাকে।
  • এম পি সি বি ত্রুটি সনাক্ত হওয়ার সাথে সাথে মোটরটির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

আরো কিছু পোস্ট

ইন্ডাস্ট্রিতে ব্যবহৃত বিভিন্ন ধরনের সুইচের সাথে পরিচিতি

লিমিট সুইচ বাবুকে নিয়ে লিমিটেড আলোচনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here