বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল সত্যিই কি ভূতুড়ে দ্বীপ? এর নেপথ্যে রহস্য কি?

0
64

পৃথিবী অপার রহস্যময়। পৃথিবী বিভিন্ন রহস্যের বেড়াজালে আবদ্ধ। বিজ্ঞানও এসব রহস্য সমাধানে প্রাণপণে ছুটেছে পৃথিবীর একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে। কৌতূহল এবং রহস্য অনুসন্ধিৎসু মানুষের এই প্রবণতাকে পুঁজি করে পৃথিবীতে অনেক ধরনের বাণিজ্য হয়েছে। বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল বা শয়তানের ত্রিভূজের রহস্য সেই রকম একটি বাণিজ্য। বারমুডা ট্রায়াংগেলের নেপথ্যে মূল রহস্য জানতে হলে আমাদের বারমুডা ট্রায়াঙ্গেলের সাথে পরিচিত হতে হবে।

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল কোথায় অবস্থিত?

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল আটলান্টিক মহাসাগরের একটি বিশেষ দ্বীপাঞ্চল, যেখানে বেশ কিছু জাহাজ ও উড়োজাহাজ রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হওয়ার কথা বলা হয়। কিন্তু সত্যিকার অর্থে বারমুডা ট্রায়াঙ্গলের ভৌগলিক অবস্থান নির্দিষ্ট নয়।

কেউ মনে করেন এর আকার ট্রাপিজয়েডের মত, যা বিস্তৃত রয়েছে স্ট্রেইটস অব ফ্লোরিডা, বাহামা এবং ক্যারিবিয়ান দ্বীপপূঞ্জ এবং ইশোর (Azores) এর পূর্বদিকের আটলান্টিক অঞ্চল জুড়ে।

আবার কেউ কেউ এগুলোর সাথে মেক্সিকোর উপসাগরকেও যুক্ত করেন। তবে লিখিত বর্ণনায় যে সাধারণ অঞ্চলের ছবি ফুটে ওঠে তাতে রয়েছে ফ্লোরিডার আটলান্টিক উপকূল, সান হোয়ান (San Juan), মধ্য আটলান্টিকে বারমুডার দ্বীপপূঞ্জ এবং বাহামা ও ফ্লোরিডা স্ট্রেইটস এর দক্ষিণ সীমানা জুড়ে এটি বিস্তৃত।

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল
বারমুডা

এই দ্বীপটির নাম বারমুডা টায়াঙ্গেল কিভাবে হল?

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল
বারমুডা

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল এর নাম এরুপ হবার কারন হল এখানে তিনটি দ্বীপ তিন দিকে অবস্থান করে। তাই কাল্পনিকভাবে তিন দিকে তিনটি রেখা কল্পনা করে আমরা একটি ত্রিভুজ পাই।যার কারনে এর এরুপ নামকরণ হয়েছে। এবার মূল বিষয়ে ফিরা যাক। বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল সত্যিই কি ভূতুড়ে দ্বীপ?

এ দ্বীপ নিয়ে নানা ধরনের গল্প গুজব শোনা যায়। সেগুলো আসলেই কি সত্যি? কখনো জাহাজ উড়োজাহাজ অদৃশ্য কোন টানে ডুবে যায় সাগরের গভীরে, কখনো নাবিক বা বৈমানিক দিকবিদিকশূণ্য হয়ে পড়ে। কারণ কম্পাস কাটা ঠিকভাবে কাজ করতে পারেনা। এসবের পেছনে আসলে মূল্য রহস্যটা কি? চলুন সাহসিকতার সাথে তদন্ত শুরু হোক।

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল সত্যিই কি ভূতুড়ে দ্বীপ?

প্রত্যেক জিনিসেরই সাইন্টিফিক লজিক থাকে। প্রকৌশলের ছাত্র হিসেবে আমি অন্তত বিলিভ করি।

এই ট্রায়াংগেলের চারদিক জলবেষ্টিত আর এই জলের খুব নিচে খুব বিশাল গিরিখাদ থাকতে পারে যা মিথেন গ্যাস দিয়ে পূর্ণ।

সেই মিথেন গ্যাস জলের সাথে মিশে আইস হাইড্রেট তৈরি করে যা এক সময় সমুদ্রের অভ্যন্তরে বিশাল বিস্ফোরণ তৈরি করে।যার কারনে সমুদের উপরিপৃষ্ঠে বুদবুদ ও তীব্র ঘূর্ণিপাকের সৃষ্টি হয়।

যার ফলে যে কোন জাহাজ এই অঞ্চলে গেলে পতন ঘটে।

এবার প্রশ্ন হতে পারে বিমান কিভাবে পতিত হয়?

যার ব্যাখ্যা হল গ্যাসীয় উদগীরনের ফলে ওই এলাকার বায়ু খুব বৈরি ও মেঘাচ্ছন্ন হয়।তাই সেখানে সবসময় বজ্রপাত ও বৃষ্টি লেগেই থাকে। যার দরুণ বৈমানিক অনেকসময় দিকবিদিকশুন্য হয়ে যায় ও পতন ঘটে।

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল এ কম্পাস কাঁটা ঠিকভাবে বিক্ষেপ না দেয়ার কারণ কি?

আমরা জানি, পৃথিবী এক বিশাল চৌম্বকক্ষেত্র। পৃথিবীর অনেক স্থানে বিক্ষিপ্ত চৌম্বকক্ষেত্র রয়েছে। বারমুডা ট্রায়াংগেল ও হয়তো তার ব্যতিক্রম নয়।

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেলে বিভিন্ন রকম পাথর রয়েছে যাদের মূল উপাদান হল ফেরিক অক্সাইড যা একটি চৌম্বক পদার্থ। এই ফেরিক অক্সাইডের আনবিক বিন্যাসের কারণে পাথরগুলো ম্যাগনেটে রুপায়িত হতে পারে। যার দরুণ ঐ অঞ্চলে বিক্ষিপ্ত চৌম্বকক্ষেত্র রয়েছে। যে কারণে নাবিক বা বৈমানিক কম্পাস কাটা ব্যবহার করতে গিয়ে বেশ অসুবিধার সম্মুখীন হয়।

বিজ্ঞান আমাদের জন্য সত্যিই এক আশীর্বাদ। বিজ্ঞানের বদৌলতে বিভিন্ন প্রকার কুসংস্কার এই পৃথিবী থেকে দূরীভূত হচ্ছে এবং হবেও৷ তাই নিজেকে আলোকিত করতে বিজ্ঞানের বিকল্প নেই। যুক্তির বিচারে সবকিছু চিন্তা করাটাই শ্রেয়। ভৌতিক ব্যাখ্যার কোনরুপ ভিত্তি নেই।

বিজ্ঞান নিয়ে আরো কিছু আর্টিকেল

3D হলোগ্রাম টেকনিক এবং ডাইনির ছায়া

দূর থেকে চলন্ত জাহাজকে স্থির মনে হয় কেন?

পৃথিবী সূর্যের চারদিকে ঘুরলেও তা স্থির দেখায় কেন?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here