ভিন্ন নিয়মে অটো স্টার-ডেল্টা সার্কিট তৈরির পদ্ধতি

0
618

স্টার ডেল্টা কানেকশনের কথা আমরা কে না শুনেছি? আমরা সবাই অবগত যে, মোটরের চালু হবার সময় যে অতিরিক্ত কারেন্ট বা ইনরাশ কারেন্ট প্রবাহিত হয় তাকে অবদমন করার জন্যই প্রথমে মোটরে স্টারে সংযোগ দেয়া হয় এবং কিছু সময় পরে তাকে ডেল্টায় সংযুক্ত করা হয়। সাধারণত মোটর ৫ কিলোওয়াটের উপর হলে এই স্টার ডেল্টা কানেকশন দেয়া হয়ে থাকে। এ নিয়ে ইতোমধ্যেই আমাদের ব্লগে অনেক আর্টিকেল রয়েছে। তাই ঐদিকে না যেয়ে সরাসরি মূল আলোচনায় আসা যাক।

স্টার-ডেল্টা সার্কিট কানেকশন কম বেশি আমরা সবাই দেখেছি। কিন্তু আজকে একটু ব্যতিক্রমী স্টাইলে অটো স্টার-ডেল্টা সার্কিট কিভাবে তৈরি করতে হবে সেই বিষয়ে আড্ডা জমে উঠবে।

প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম

কাজটি করতে লাগবে তিনটি ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর। একটি স্টার কানেকশনের জন্য, একটি ডেল্টা কানেকশনের জন্য আরেকটি কমন। তারপর সময় গণনার জন্য একটি টাইমার লাগবে। তারপর দুইটি পুশ সুইচ। একটি অন পুশ, আরেকটি অফ পুশ সুইচ।

ডিভাইসের কার্যকারিতা পরীক্ষা

কানেকশনের শুরুতে ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এবং টাইমার ঠিক আছে কিনা যাচাই করে নিতে হবে। ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর সিংগেল ফেজ হলে তার হোল্ডিং কয়েলের দুই প্রান্ত A1 এবং A2 তে একটি ফেজ এবং একটি নিউট্রাল ধরে চেক করতে হবে ম্যাগনেটিক কন্টাক্টরের মাঝের বাটনটি উঠানামা করছে কিনা?

টাইমারেও একইভাবে একটি ফেজ এবং নিউট্রাল সংযুক্ত করে দেখতে হবে যে টাইমারের “ON” লিখার জায়গায় সংযুক্ত এল ই ডি টি পাওয়ার পাচ্ছে কিনা? যদি এল ই ডি টি জলে উঠে তাহলে টাইমার ঠিক আছে।

সার্কিট ডায়াগ্রাম ও অপারেশন

প্রথমেই তিনটি ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এবং টাইমারে নিউট্রাল সংযোগ দিতে হবে। তারপর ফেজ কয়েলকে স্টপ পুশ বাটন সুইচের নরমালি ক্লোজ কন্ট্যাক্টে সংযুক্ত করতে হবে এবং অন পুশ সুইচের নরমালি ওপেন কন্ট্যাক্টে সংযুক্ত করতে হবে। তারপর অন পুশ সুইচের অপর প্রান্ত কমন ম্যাগনেটিক কন্টাক্টরের সাথে সংযুক্ত করতে হবে। আগের আর্টিকেলেও বলা হয়েছে, ফেজ লাইনকে সর্বদা অন পুশ সুইচের নরমালি ওপেন কন্ট্যাক্ট এবং অফ পুশ সুইচের নরমালি ক্লোজ কন্ট্যাক্টে সংযুক্ত করতে হয়। এবার নিচে সার্কিট কানেকশন ডায়াগ্রাম উল্লেখ করা হল-

স্টার-ডেল্টা কানেকশন

উপরে খুব সহজভাবে আপনাদের জন্য সার্কিটটি তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। এখানে, স্টারের জন্য ব্যবহৃত ম্যাগনেটিক কন্টাক্টরটির সাথে সংযুক্ত অন পুশ সুইচে প্রেস করলেই কমন কন্টাক্টরটি পাওয়ার পায়। সুইচ ছেড়ে দেয়ার পরেও যেন কমন ম্যাগনেটিক কন্টাক্টরে পাওয়ার সচল থাকে সেইজন্য তাকে ল্যাচিং করা হয়েছে।

ল্যাচিং শব্দের অর্থ কোন কিছু হোল্ড করে রাখা। এক্ষেত্রে পাওয়ারকে হোল্ড করে রাখার কথা বলা হচ্ছে। পুশবাটন সুইচ প্রেস করার পর ছেড়ে দিলে যখন আগের অবস্থায় ফিরে আসে তখন কন্ট্রোল সার্কিটে আর পাওয়ার থাকে না। তাই পাওয়ারকে হোল্ড বা আঁকড়ে ধরে রাখার জন্য ল্যাচিং করা হয়। তাই ফ্যাক্টরিতে মেশিনে পুশবাটন সুইচকে অন সুইচ হিসেবে ব্যবহার করলে কন্ট্রোল সার্কিটকে ল্যাচিং করা হয়। অন্যথায় পাওয়ার সংযোগ বিচ্ছিন্ন হবে।

এরপর টাইমারের সময় নির্ধারণ করে দেয়া আছে। নির্ধারিত সময় পার হলেই স্টার কানেকশনের ম্যাগনেটিক কন্টাক্টরে ইন্টারলক করা নরমালি ক্লোজ কন্ট্যাক্টটি ওপেন হয়ে যাবে। তখন স্টার এর জন্য ব্যবহৃত ম্যাগনেটিক কন্টাক্টরটি আর পাওয়ার যাবেনা এবং ডেল্টার জন্য ব্যবহৃত ম্যাগনেটিক কন্টাক্টরটি পাওয়ার পাবে। মোটর স্টার কানেকশন থেকে ডেল্টায় সংযুক্ত হবে।

আরো একটি পোস্ট

পুশ সুইচ দিয়ে একটি মোটরকে তিন দিক থেকে নিয়ন্ত্রণ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here