Home ইলেকট্রিক্যাল ট্রান্সফরমার নিয়ে অদেখা কিছু প্রশ্ন (পর্ব ২)

ট্রান্সফরমার নিয়ে অদেখা কিছু প্রশ্ন (পর্ব ২)

0
937

ট্রান্সফরমার কোর ম্যাগনেটোস্ট্রিকশন বলতে কি বুঝ ?

পরিবর্তনশীল কারেন্ট এবং ভোল্টেজের প্রভাবে ট্রান্সফরমারের আয়রন কোরে যখন একবার ম্যাগনেটিক ফিল্ড তৈরি হয় তখন আয়রন কোরের সংকোচন ঘটে। যখন ম্যাগনেটিক ফিল্ড থাকে না তখন আবার স্থিতিস্থাপকতা ধর্মের কারণে আয়রন কোর পূর্বের অবস্থায় ফিরে আসে অর্থাৎ প্রসারণ ঘটে। পুরো সাইকেল ধরে এ আয়রন কোরের মধ্যে সংকোচন ও প্রসারণ চলতে থাকে যা Magnetostriction নামে পরিচিত। এই Magnetostriction এর ফলে ট্রান্সফরমারে হাম নয়েজের সৃষ্টি হয় যা ট্রান্সফরমারের হামিং নামে পরিচিত।

ট্রান্সফরমারের খুঁটিনাটি
কোর ম্যাগনেটোস্ট্রিকশন
কোর ম্যাগনেটোস্ট্রিকশন

ট্রান্সফরমারের স্লাজিং কি?

ট্রান্সফরমারের তৈল বাতাসের সংস্পর্শে এসে গেলে অক্সিজেনের সাথে বিক্রিয়া করে তেলের অনুগুলো ভেঙ্গে যায়। এই ঘটনাকে বলা হয় ট্রান্সফরমার স্লাজিং। ট্রান্সফরমারের পাইরিনল ওয়েলের সাথে বাতাসের এই দহন বিক্রিয়াই মূলত স্লাজিং এর কারণ।

ট্রান্সফরমারের খুঁটিনাটি
ট্রান্সফরমার স্লাজিং
ট্রান্সফরমার স্লাজিং

পোলারিটি না জেনে ট্রান্সফরমারের প্যারালালে অপারেশন করা হলে কি কি সমস্যা হবে?

সমস্যাগুলো নিম্নরুপঃ

  • ট্রান্সফরমারগুলোর নিজেদের মাঝে সার্কুলেটিং কারেন্ট প্রবাহিত হয়। যার ফলে অতিরিক্ত তাপমাত্রা সৃষ্টি হয় এবং লস বৃদ্ধি পায়।
  • ট্রান্সফরমারে শর্ট সার্কিট হবে।
  • পুরো ট্রান্সফরমার নষ্ট হয়ে যাবার সম্ভাবনা থাকে।
  • সংযোগ দেয়া লোডে কারেন্ট প্রবাহিত হয় না।
ট্রান্সফরমারের খুঁটিনাটি
ট্রান্সফরমার ব্যাংকিং
ট্রান্সফরমার ব্যাংকিং

ONAN ও ONAF কি?

এগুলো হল ট্রান্সফরমার কুলিং সিস্টেমের নাম। যদি কুলিং ফ্যানের মাধ্যমে বাতাসের চাপ দিয়ে ট্রান্সফরমার তেলকে ঠান্ডা রাখা হয়, তবে তাকে Oil Natural Air Force (ONAF) Cooling বলে। ফ্যান না চালিয়ে শুধুমাত্র ট্রান্সফরমার তেলের মাধ্যমেই ঠান্ডা রাখলে, তাকে Oil Natural Air Natural (ONAN) Cooling বলে। সাধারনত লোড কম থাকলে কুলিং ফ্যান চালানো হয় না, লোড বাড়লে চালাতে হয়। তাই একই ট্রান্সফরমার ONAN এবং ONAF দুই মোডেই চালানো হয়।

ট্রান্সফরমারের খুটিনাটি
ট্রান্সফরমার কুলিং
ট্রান্সফরমার কুলিং

ট্রান্সফরমারে কোন ধরনের লোডে ভোল্টেজ রেগুলেশনের মান নেগেটিভ হয় এবং কেন?

ক্যাপাসিটিভ লোডের ক্ষেত্রে ভোল্টেজ রেগুলেশনের মান নেগেটিভ হয়। কারন এক্ষেত্রে কারেন্ট ভোল্টেজের ৯০‌ ডিগ্ৰী আগে থাকে।

ট্রান্সফরমারে পাইরিনল অয়েলের ফ্লাশ পয়েন্ট ও ফায়ার পয়েন্ট কত?

ট্রান্সফরমারকে ঠাণ্ডা রাখা ও ইন্সুলেশন হিসাবে কাজ করে ট্রান্সফরমার অয়েল। যে তাপমাত্রায় তৈলের বাস্পে আগুন ধরে যায় তাকে ফ্লাশ পয়েন্ট। এই তাপমাত্রা ১৬০° C এর নিচে হওয়া ঠিক নয়। আর যে তাপমাত্রায় ট্রান্সফরমারের তেলে আগুন ধরে যায় তাকে ফায়ার পয়েন্ট। এই তাপমাত্রা ২০০° C এর নিচে হওয়া ঠিক নয় বলে।

ট্রান্সফরমারের খুঁটিনাটি
পাইরিনল তেল
পাইরিনল তেল

আবাসিক এলাকায় ডিস্ট্রিবিউশন ট্রান্সফরমার ব্যবহার না করে অটো ট্রান্সফরমার ব্যবহার করলে কি সমস্যা হবে?

আমরা জানি, ডিস্ট্রিবিউশন ট্রান্সফরমারের প্রাইমারি ও সেকেন্ডারি সাইড ইলেকট্রিক্যালি আইসোলেটেড থাকে। তড়িৎ চুম্বক আবেশ প্রক্রিয়ায় বিদ্যুৎ সাপ্লাই সাইড থেকে লোড সাইডে যায়। কিন্তু অটো ট্রান্সফরমারে সাপ্লাই সাইড এবং লোড সাইড ইলেকট্রিক্যালি সংযুক্ত থাকে। তাই শর্ট সার্কিট দূর্ঘটনা ঘটার সম্ভবনা বেশি থাকে। আর ডিস্ট্রিবিউশন ট্রান্সফরমারে ওভারলোডিং প্রব্লেম ডিটেকশনের ব্যবস্থা থাকে। এজন্যই ডিস্ট্রিবিউশন ট্রান্সফরমার ব্যবহার করাই উত্তম।

ট্রান্সফরমারের খুঁটিনাটি
পাইরিনল তেল
অটো ট্রান্সফরমার

কোন ট্রান্সফরমারে বৈদ্যুতিক সংযোগ নেই। তাহলে এটি স্টেপ ডাউন নাকি স্টেপ আপ কিভাবে বুঝব?

বৈদ্যুতিক সংযোগ না থাকলেও খুব সহজে কোন ট্রান্সফরমারের স্টেপ ডাউন নাকি স্টেপ আপ বের করা যায় ।
কোন ট্রান্সফরমারের প্রাইমারি সাইডের থেকে যদি সেকেন্ডারি সাইডে প্যাঁচের সংখ্যা কম হয় তখন সেই ট্রান্সফরমারকে স্টেপ ডাউন ট্রান্সফরমার বলা হয় ।
আবার, যখন কোন ট্রান্সফরমারের প্রাইমারি সাইডের থেকে যদি সেকেন্ডারি সাইডে প্যাঁচের সংখ্যা বেশি থাকে তখন সেই ট্রান্সফরমারকে স্টেপ আপ ট্রান্সফরমার বলে ।
তাই বলা যায় কয়েলের প্যাঁচের সংখ্যা দেখেই আমরা খুব সহজে কোন ট্রান্সফরমারের স্টেপ ডাউন নাকি স্টেপ আপ অবস্থা বুঝতে পারি।

ট্রান্সফরমার ব্যাংকিং সাধারনত কয় প্রকার?

ট্রান্সফরমারের ব্যাংকিং সাধারনত ছয় প্রকার হয়ে থাকে, সেগুলো হলোঃ
১। ডেল্টা – ডেল্টা কানেকশন ।
২। স্টার – স্টার কানেকশন ।
৩। স্টার – ডেল্টা কানেকশন ।
৪। ডেল্টা – স্টার কানেকশন ।
৫। (V-V) অথবা ওপেন ডেল্টা কানেকশন ।
৬। T – T কানেকশন ।

ট্রান্সফরমার সিম্বলের মাঝের ডাবল লাইন কি নির্দেশ করে?

ট্রান্সফরমার সিম্বল সবাই লিখতে জানি। কিন্তু এই সিম্বলে প্রাইমারি এবং সেকেন্ডারি উইন্ডিং এর মাঝে ডাবল লাইন থাকে। এই ডাবল লাইনের এক বিশেষ তাটপর্য আছে। এই ডাবল লাইন মূলত সাপ্লাই সাইড এবং লোড সাইডের আইসোলেশনকে ইংগিত করছে। এর অর্থ হল প্রাইমারি এবং সেকেন্ডারি উইন্ডিং ইলেকট্রিক্যালি আইসোলেটেড এবং ম্যাগনেটিক্যালি কাপলড।

ট্রান্সফরমারের খুঁটিনাটি
ট্রান্সফরমার সিম্বল
ট্রান্সফরমার সিম্বল

একটি ট্রান্সফরমারের HT (High tension) side delta & LT (Low tension) side এ star connection থাকে কেন?

আমরা সকলেই জানি, স্টার কানেকশন সর্বদা অতিরিক্ত কিংবা উচ্চ মাত্রার কারেন্ট অবদমিত করতে পারে। যেটা আমরা মোটরের স্টার ডেল্টা কানেকশন পড়ার সময়ও জেনেছি। মূলত LT side এর high range এর current minimize করার জন্যই স্টার কানেকশন দেয়া হয়।

কিভাবে বুঝব LT side এ কারেন্ট বেশি নিবে?

খুব সিম্পল। আমরা জানি, ট্রান্সফরমার পাওয়ার ফিক্স রেখে ভোল্টেজ কারেন্টের পরিবর্তন করে। LT side এ ভোল্টেজ এর চাপ তুলনামূলক কম। তাই পাওয়ার ফিক্স রাখার জন্য কারেন্ট খুব বেড়ে যাবে। আর এই অতিরিক্ত কারেন্ট অবদমিত করতে স্টার কানেকশন ব্যবহার করা হয়। পক্ষান্তরে, HT সাইড এ ভোল্টেজের চাপ বেশি, কারেন্ট কম। তাই এটা ডেল্টা সংযোগ রাখা হয়।

ট্রান্সফরমার নিয়ে আরো কিছু পোস্ট

ট্রান্সফরমার নিয়ে অদেখা কিছু প্রশ্নঃ (পর্ব-১)

50 Hz এর ট্রান্সফরমার 60 Hz এ এবং 60 Hz এর ট্রান্সফরমার 50 Hz এ চালনা করলে কি হবে?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

error: Content is protected !!