এপারেন্ট, রিএক্টিভ, রিয়েল পাওয়ারের ত্রিকোণ প্রেম সম্বন্ধে পড়ুন

0
পাওয়ার

আমরা সবাই একটা কথার সাথে পরিচিত যে রিএক্টিভ & রিয়েল এই দুইটা মিলেই হয় এপারেন্ট পাওয়ার।

কথাটার গাণিতিক অর্থ অনেকেই এটা ভাবতে পারে, এপারেন্ট Power = Reactive + Real. এই ধারণা মোটেও ঠিক নয়।

পাওয়ার ফ্যাক্টর সম্বন্ধে বিস্তারিত পড়ুন 

 

এপারেন্ট, রিএক্টিভ এবং রিয়েল Power relation টা হিসেব করতে হয় power triangle থেকে। আমরা এখন দেখব তাদের Triangle love story 😀

  • এপারেন্ট পাওয়ার = S
  • রিয়েল পাওয়ার = P
  • রিএক্টিভ পাওয়ার = Q

তাহলে, S কে নিয়েই P & Q এর মারামারি :D। P বলে S এর সম্পূর্ণ মন জুড়ে আমি থাকব। Q বলে না S এর সম্পূর্ণ অংশ জুড়ে আমি থাকব :D। S বেচারা পড়ল মহা বিপাকে। সে কাকে ছেড়ে কাকে রাখবে? তাই সে সিদ্ধান্ত নিল তোমরা দুজনেই আমার।

তাই এক্ষেত্রে Reactive & Real একে অন্যের সতীন 😀 তাই Apparent  তাদের দুজনের সাথে একটি ট্রায়াঙ্গল আকৃতির বাসায় বসবাস করতে লাগল।

এই ত্রিভুজের ভূমি হল P ( রিয়েল Power ) & লম্ব হল Q ( রিএক্টিভ Power ) আর অতিভুজ হল S ( এপারেন্ট Power )।

 

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, P কেন ভূমি & Q কেন লম্ব?

রিয়েল Power এর ক্ষেত্রে ভোল্টেজ & কারেন্ট এর মধ্যবর্তী কোণ 0. আর রিএক্টিভ Power এর ক্ষেত্রে এটা 90.

তাহলে, এবার পীথাগোরাস করলে, S*S = P*P + Q*Q বা, S = root over of ( P*P + Q*Q) এটাই তাদের ত্রিকোণ প্রেমের গল্প 😀

বুঝানোর স্বার্থে অমার্জিত ভাষা ব্যবহার করায় আন্তরিক ভাবে দু:খিত 🙁

পাওয়ার ফ্যাক্টর সম্বন্ধে বিস্তারিত পড়ুন 

Courtesy: Iqbal Mahmood

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here