কন্ট্রোল সিস্টেমঃ ওপেন লুপ ও ক্লোজড লুপ | Open Loop & Closed Loop Control System

কন্ট্রোল সিস্টেম

আমরা পূর্বের লেখাতে কন্ট্রোল সিস্টেম সম্বন্ধে জেনেছি। এই লেখাটিতে ওপেন লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম এবং ক্লোজ লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম সম্বন্ধে আমরা জানবো।

কন্ট্রোল সিস্টেম সম্বন্ধে পড়ুন

এই লেখাটিতে যেসকল বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবেঃ

ওপেন লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম

  • ওপেন লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম কি?
  • দৈনন্দিন জীবনে ওপেন লুপ সিস্টেমের ব্যবহার
  • ওপেন লুপ সিস্টেমের সুবিধা
  • ওপেন লুপ সিস্টেমের অসুবিধা

ক্লোজড লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম

  • ক্লোজড লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম কি?
  • দৈনন্দিন জীবনে ক্লোজড লুপ সিস্টেমের ব্যবহার
  • ওপেন লুপ সিস্টেমের সুবিধা
  • ওপেন লুপ সিস্টেমের অসুবিধা

ওপেন লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম

“যে সিস্টেমের আউটপুট ইনপুটে কখনো ফিডব্যাক হিসেবে ফিরে আসে না তখন তাকে ওপেন লুপ সিস্টেম বলে”। ওপেন লুপ সিস্টেমকে নন ফিডব্যাক সিস্টেমও বলা হয়। ওপেন লুপ সিস্টেমের আউটপুট শুধুমাত্র ইনপুটের ওপর নির্ভর করে।

ওপেন লুপ সিস্টেমকে যদি একটু ভালোভাবে বুঝতে চাই তাহলে আমাদের মনে রাখতে হবে ওপেন লুপ সিস্টেমে Transducer, Controller, Process/Plant নামক কিছু জিনিস থাকে।

এই সিস্টেমের শুরুটা হয় একটা ইনপুট সিগন্যাল দিয়ে। তারপর এই ইনপুট সিগন্যাল transducer দিয়ে গমন করে। তখন Transducer এই ইনপুট সিগন্যালকে Controller  উপযোগী একটা অবস্থানে নিয়ে যায়। Controller তখন তাকে Process বা Plant এর মধ্যে দিয়ে দেয়।

সর্বশেষ Process বা Plant এর মধ্য দিয়ে আমাদের কাছে তা আউটপুট হিসেবে আসে। মনে রাখতে হবে Controller এবং Plant এর আউটপুট হিসেবে যেটা বের হয় সেটা কখনোই ১০০% পিওর বা ভেজালমুক্ত হয়না, তারা কিছু না কিছু Noise এর কবলে পড়বেই যাকে Disturbance বলে।

এই Noise গুলো সাধারণত summing junction দিয়ে সিস্টেমে ডুকে। একটা summing junction এর মোট সিগন্যাল হচ্ছে ইনপুট সিগন্যাল ও Disturbance সিগন্যালের যোগফলের সমান।

দৈনন্দিন জীবনে ওপেন লুপ সিস্টেমের ব্যবহারঃ

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ওপেন লুপ সিস্টেমের বহুবিদ ব্যবহার রয়েছে। ওপেন লুপ সিস্টেমের আলোকে দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত কিছু উদাহরণ নিম্নে দেওয়া হলোঃ

  • ওয়াশিং মেশিন
  • বৈদ্যুতিক বাতি
  • বৈদ্যুতিক হ্যান্ড ড্রাইয়ার
  • ইনজেক্ট প্রিন্টার
  • ডোর লক সিস্টেম
  • অডিও সিস্টেম ভলিউম
  • ব্রেড টোস্টার
  • ক্লোথ ড্রাইয়ার
  • চা/কফি মেকার
  • রিমোট কন্ট্রোল টিভি ইত্যাদি

ওপেন লুপ কন্ট্রোল সিস্টেমের সুবিধাঃ

ওপেন লুপ সিস্টেমের কিছু উল্লেখযোগ্য সুবিধা হলোঃ

  1. ওপেন লুপ সিস্টেমের ডিজাইন খুব সহজ।
  2. এই সিস্টেমে অন্যান্য সিস্টেমের তুলনায় খরচ কম।
  3. এর রক্ষণাবেক্ষণ করা খুব সহজ।
  4. এই সিস্টেমের স্থায়ীত্ব বেশি।
  5. এই ধরনের সিস্টেম ব্যবহার করা বেশ সুবিধাজনক।

ওপেন লুপ কন্ট্রোল সিস্টেমের অসুবিধাঃ

সুবিধার পাশাপাশি ওপেন লুপ সিস্টেমে কিছু অসুবিধাও রয়েছেঃ

  1. এই সিস্টেমের bandwidth কম।
  2. এই সিস্টেমে অটোমেশন সুবিধা নেই।
  3. এটি মুলত inaccurate সিস্টেম।
  4. এই সিস্টেম স্বয়ংক্রিয়ভাবে আউটপুট বিচ্যুতি সঠিক করতে পারে না।

ক্লোজড লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম

“যে সিস্টেমের আউটপুট ইনপুটে ফিডব্যাক হিসেবে ফিরে এসে উৎপন্ন আউটপুটের উপর ভিত্তি করে পরবর্তী ইনপুটের সামঞ্জস্য বজায় রেখে কাজ করে তাকে ক্লোজড লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম বলে”। ক্লোজড লুপ সিস্টেমকে ফিডব্যাক সিস্টেমও বলাও হয়।

এই সিস্টেম ওপেন লুপ সিস্টেমের মতোই একটি ইনপুট সিগন্যাল কন্ট্রোলারের মধ্য দিয়ে প্রবেশ করে প্রসেসিং হয়ে ইনপুট ও আউটপুটের মধ্যে সামঞ্জস্য বজায় রেখে একটি আউটপুট প্রদান করে। তবে আউটপুট প্রদানের সময় যদি কোন সমস্যা বা disturbance এর কবলে পড়ে তাহলে আউটপুট  ফিডব্যাক হিসেবে ইনপুটে ফিরে এসে আবার কন্ট্রোলারের মধ্য দিয়ে প্রবেশ করে প্রসেসিং হয়ে উভয়ের মাঝে সামঞ্জস্য রেখে উপযুক্ত আউটপুট প্রধান করে। পুরো সময় এই প্রক্রিয়া চলতে থাকে। এই সিস্টেমে disturbance এর মান অনেক কম থাকে।

দৈনন্দিন জীবনে ক্লোজড লুপ সিস্টেমের ব্যবহার

আধুনিক পৃথিবী দিন দিন অটোমেশন সিস্টেমের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। আর প্রতিটি অটোমেশন সিস্টেমেই রয়েছে ক্লোজড লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম। এছাড়া আমাদের মানব শরীরই ক্লোজড লুপ সিস্টেমের একটি নিখুত উদাহরণ।

আমরা যখন রাস্তা দিয়ে চলাচল করি তখন চারপাশে অবস্থা পর্যবেক্ষন করে আমরা চলাচল করি।  যদি দেখি আমি যে পথে চলছি সে পথে কোন বাধা রয়েছে তাহলে আমাদের ব্রেইন তখন অবস্থানের উপর সামঞ্জস্য রেখে উপযুক্ত পজিশন(অবস্থান) ঠিক করে দেয়।

এখানে, ইনপুট হচ্ছে  চারপাশে অবস্থা, কন্ট্রোলার হচ্ছে ব্রেইন, প্রসেস হচ্ছে মানব শরীর এবং আউটপুট হচ্ছে উপযুক্ত পজিশন।

এছাড়া

  • অটোমেটিক ইলেক্ট্রিক আয়রন।
  • কন্ট্রোলিং সিস্টেম গাড়ি।
  • ওয়াটার লেভেল কন্ট্রোলার।
  • পাওয়ার স্টেশনের টারবাইন ওয়াটার কন্ট্রোলার।
  • অটোমেটিক টোস্টার।
  • ইনভার্টার এসি।
  • অটো ইঞ্জিন।
  • থার্মোস্টেট হিটার।
  • মিসাইল লাউঞ্চারসহ ইত্যাদি ক্লোজড লুপ কন্ট্রোল সিস্টেম।

ক্লোজড লুপ সিস্টেমের উপকারিতা

ক্লোজড লুপ সিস্টেমের উল্লেখযোগ্য কিছু সুবিধা হলোঃ

  • এই সিস্টেমের bandwidth পরিসীমা বড়।
  • এই সিস্টেমে অটোমেশন সুবিধা রয়েছে।
  • এটি একটি accurate সিস্টেম।
  • এই সিস্টেমে আউটপুট বিচ্যুতি হলে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সঠিক করতে পারে।
  • এই সিস্টেমকে স্থিতিশীল করতে সিস্টেমের সংবেদনশীলতা ছোট করা যায়।
  • এই সিস্টেমে noise এর পরিমান খুবই কম।

ক্লোজড লুপ সিস্টেমের অসুবিধা

এই সিস্টেমে অনেক সুবিধা থাকলেও বেশ কিছু অসুবিধা রয়েছে। যেমনঃ

  • এ সিস্টেমের ডিজাইন জটিল।
  • এই সিস্টেম ব্যয়বহ।
  • এর রক্ষণাবেক্ষণ করা কঠিন।
  • এই সিস্টেমের স্থায়ীত্ব কম।

কন্ট্রোল সিস্টেম সম্বন্ধে পড়ুন

পরিশেষে কিছু কথা

প্রযুক্তির কল্যাণে আমাদের জীবন যাত্রার মান দিন দিন উন্নত হচ্ছে। আর আমাদের উন্নত বিশ্বের এই প্রতিটা উন্নতির পিছনে যাদের অবদান সবচেয়ে বেশী তারা হচ্ছেন ইঞ্জিনিয়ার বা প্রকৌশলী। আমরা আজ যে কন্ট্রোল সিস্টেম নিয়ে আলোচনা করলাম এই কন্ট্রোল সিস্টেমের কারনেই পৃথিবী আজ এতোটা উন্নতির পথে। পৃথিবী যে পথে হাটছে একদিন রোবটরা এই পৃথিবী চালাবে কিন্তু এই রোবটদের চালাবে ইঞ্জিনিয়াররা। তাই ইঞ্জিনিয়ার বা ইঞ্জিনিয়ারিং স্টুডেন্ট হিসেবে আমাদের প্রত্যেকের উচিত কন্ট্রোল সিস্টেমের প্রত্যেকটা টপিকস ভালো করে জানা ও বোঝা।

8 COMMENTS

  1. Controlsystem khub hard akta subjec. But lekhagula khub effective khub easily bujeci.

    • আমাদের লেখকগন আপনাদের জন্য লিখে যাচ্ছেন। তাদের জন্য দোয়া করবেন।

      • Md.Rabiul Islam

        pdf file dile valo hoy .aita download kora jai na

  2. Off line porar jonno save system thakle valo hoto.

    • এই সিস্টেম নিয়ে আমরা খুব বেশি জানি না। আপনি বিস্তারিত বললে আমরা এই সিস্টেম টি বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করবো।

    • স্বাগতম ভাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here