সিনক্রোনাস মোটর | Synchronous motor in Bangla

সিনক্রোনাস মোটর

সিনক্রোনাস শব্দের বাংলা অর্থ সমলয় বা সমকালীন অর্থাৎ সিনক্রোনাস মোটর এমন একটি মোটর যা নো-লোড বা ফুল লোড অবস্থায় একই গতিতে ঘুরে। এই লেখাটির আলোচ্য বিষয় সমূহঃ

  1. সিনক্রোনাস মোটর কাকে বলে?
  2. সিনক্রোনাস মোটরের প্রধান অংশগুলো কি কি?
  3. সিনক্রোনাস মোটর কেন সেলফ স্টার্টিং নয়?
  4. সিনক্রোনাস মোটর এর স্টার্টিং পদ্ধতি।
  5. সিনক্রোনাস মোটর এর বৈশিষ্ট্য।
  6. এক্সাইটেশন কি?
  7. সিনক্রোনাস মোটরকে কিভাবে ইউনিট পাওয়ার ফ্যাক্টরে পরিচালনা করা হয়?
  8. ৩ ফেজ সিনক্রোনাস মোটরের ব্যবহার।
  9. সিনক্রোনাস মোটরের ব্যবহারিক ক্ষেত্র।
  10. সিনক্রোনাস মোটরের হান্টিং কি, এর কারন অসুবিধা ও প্রতিকার।
  11. ডাম্পার ওয়াইন্ডিং কি?

সিনক্রোনাস মোটর কাকে বলে?

সিনক্রোনাস মােটরঃ যে মােটর নাে লােড হতে ফুল লােড পর্যন্ত একটি নির্দিষ্ট গতিবেগে ঘুরে, অর্থাৎ সিনক্রোনাস গতিবেগ, Ns=120f / P এ ঘুরে তাকে সিনক্রোনাস মােটর বলে। এই ধরনের মোটরে কোন স্লীপ নেই।

এ মােটরের ঘূর্ণনের গতিবেগ লােড পরিবর্তনের সাথে সাথে অন্যান্য মােটরের ন্যায় পরিবর্তন হয় না। এই মােটরের ষ্টেটর ওয়াইন্ডিং এর মধ্যে তিন ফেজে সরবরাহ দিতে হয় এবং তা সিনক্রোনাস স্পীডে ঘুরে একটি রােটেটিং ম্যাগনেটিক ফিল্ড তৈরি করে।

অন্য দিকে রােটরের ফিল্ড ওয়াইন্ডিং এ এক্সাইটার হতে কার্বন ব্রাশ ও স্লিপ রিং এর সাহায্যে সাপ্লাই দিয়ে প্রয়ােজনীয় সংখ্যক স্থির পােল সৃষ্টি করা হয়। ষ্টেটরের ঘূরন্ত ফিল্ড পােল রােটরের স্থির বিপরীত পােলের সাথে ম্যাগ্নেটিক কাপল হয়ে সিনক্রোনাস স্পীড এ ঘুরতে থাকে। এই মােটরে কোন স্লিপ নাই। এটা নিজে নিজে স্টার্ট নিতে পারে না এবং একে বিভিন্ন পাওয়ার ফ্যাক্টরে চালানাে যায়।

সিনক্রোনাস মোটরের প্রধান অংশগুলো কি কি?

  • Stator Winding
  • Rotor Winding
  • Exciter
  • Slip Ring
  • Carbon Brush
  • Damper Winding etc

সিনক্রোনাস মোটর কেন সেলফ স্টার্টিং নয়?

প্রাথমিক অবস্থায় রােটর স্থির থাকা অবস্থায় স্টেটরে বাহিরে থেকে থ্রি-ফেজ সরবরাহ দিলে তাতে কারেন্টের একটি Forward Traveling wave এর সৃষ্টি হয়। এটি সিনক্রোনাস স্পীডে চলে এবং এর ফলে সৃষ্ট টর্কের অভিমুখ কারেন্ট ওয়েভের পােলারিটি অনুযায়ী পরিবর্তনশীল হয়।

এই টর্কের গড় মান শুন্য। অর্থাৎ সিনক্রোনাস মােটরের স্টার্টিং টর্ক শুন্য বিধায় সিনক্রোনাস মােটর সেলফ স্টার্টিং নয়। সেলফ স্টার্টিং করতে এই মােটরের রােটরকে কোন না কোন উপায়ে স্টেটরে উৎপন্ন Rotating Magnetic Field এর গতির কাছাকাছি গতিতে এনে দিতে হয়। DC এক্সাইটেশন দেওয়ার ফলে রােটরে উৎপন্ন মেরুত্ব যখন স্টেটরে ঘুরন্ত চুম্বকের ক্ষেত্রের মেরুত্বের মধ্যে সামাঞ্জস্য আসে তখন উহাদের মধ্যে চুম্বকীয় কাপলিং হয় ও সিনক্রোনাস গতিতে ঘুরে।

সিনক্রোনাস মোটরের স্টার্টিং পদ্ধতি

সিনক্রোনাস মোটর এর স্টার্টিং টর্ক শূন্য থাকে বলে এ মোটরে সাপ্লাই প্রয়োগ করলে সাধারণভাবে ঘুরে না। তাই এ মোটরকে স্টার্ট করতে হলে রোটরকে কোন উপায়ে স্টেটরে উৎপন্ন রোটেটিং ম্যাগনেটিক ফিল্ডের গতির কাছাকাছি এনে দিতে হয়।

  • ডি. সি. মােটরের সাহায্যে চালু করা।
  • স্বয়ং চালু ক্ষমতা সম্পন্ন সিনক্রোনাস মােটরের সাহায্যে চালু করা।
  • সিনক্রোনাস ইন্ডাকশন মােটর হিসাবে চালু করা।
  • পােনি মােটরের সাহায্যে চালু করা।
  • এক্সাইটারের সাহায্যে চালু করা।

সিনক্রোনাস মোটরের বৈশিষ্ট্য

সিনক্রোনাস মােটর এর বৈশিষ্ট্য হচ্ছেঃ

  • স্পীড কন্সট্যান্ট থাকলে এটা সিনক্রোনাস স্পীডে ঘুরে, শুধু সাপ্লাই ফ্রিকোয়েন্সি পরিবর্তনের দ্বারা এর স্পীড পরিবর্তন সম্ভব।
  • এটা Self ষ্টাটিং নয় অর্থাৎ নিজে নিজে স্টার্ট নিতে পারে না।
  • এটা ল্যাগিং ও লীডিং উভয় পাওয়ার ফ্যাক্টরে চালানাে যায়।
  • লোড ফ্যাক্টর যাই হোক মোটরের ঘূর্ণন গতির কোন পরিবর্তন হয় না।
  • রোটরে এক্সাইটেশন বা অন্য কোন প্রক্রিয়ায় স্ট্যাটিক ফিল্ড তৈরি করা হয়।

এক্সাইটেশন কি

এক্সাইটেশন অর্থ উত্তেজনা। সিনক্রোনাস মােটরে এক্সাইটেশন হিসাবে ডি.সি ফিল্ডে দেওয়া হয়। এ ভােল্টেজটি ব্যাটারী ভােল্টেজ, ডি.সি শান্ট জেনারেটর, রেকটিফায়ার ইত্যাদি উৎস হতে দেওয়া হয়।

ফিল্ডে এক্সাইটেশন ব্যাতীত সিনক্রোনাস মােটরের কার্যকারিতা থাকে না। ফিল্ড রিয়ােস্ট্যাটের সাহায্যে ডি.সি এক্সাইটেশনের পরিমান কম বেশী করে মােটরের লব্ধি ভােল্টেজর মান কম বেশী করা যায় যার ফলে মােটর ল্যাগিং, লিডিং ও ইউনিটি পাওয়ার ফ্যাক্টর পরিচালিত হয়।

সিনক্রোনাস মোটরকে কিভাবে ইউনিট পাওয়ার ফ্যাক্টরে পরিচালনা করা হয়?

প্রদত্ত কোন লােডে মােটরের ফিল্ড এক্সাইটেশন কম-বেশী করে এমন এক পর্যায়ে আনা হয় যাতে মােটরের আর্মেচার বাসবার থেকে সবচেয়ে কম কারেন্ট গ্রহণ করে। এ অবস্থায় আর্মেচার কারেন্ট ও সরবরাহ ভােল্টেজের মধ্যে কৌণিক দূরুত্ব কিছুই থাকে না। ফলে মােটর যে পাওয়ার ফ্যাক্টরে পরিচালিত হয় তাই ইউনিটি পাওয়ার ফ্যাক্টর।

সিনক্রোনাস মোটরের ব্যবহার

  • পাওয়ার ফ্যাক্টর উন্নতি করার জন্য।
  • কনস্ট্যান্ট স্পীড হিসেবে।

এছাড়া সিনক্রোনাস মোটরের ব্যবহারিক ক্ষেত্র গুলো হচ্ছেঃ

  • বৈদ্যুতিক ঘড়ি
  • রাবার মিল
  • পাখা
  • কমপ্রেসার
  • পাম্প
  • সিমেন্টের কারখানা
  • টেক্সটাইল মিল

সিনক্রোনাস মোটরের হান্টিং কি, এর কারন অসুবিধা ও প্রতিকার

হান্টিংঃ

যখন সিনক্রোনাস মােটর অনবরতঃ পরিবর্তনশীল লােডে পরিচালিত হয় বা সরবরাহ লাইনের ফ্রিকোয়েন্সি পরিবর্তিত হতে থাকে তখন রােটরের গতিবেগও ক্রমাগত তার সঙ্গে ওঠা-নামা করতে থাকে। মােটরের এ অবস্থাকেই হান্টিং বলে।

হান্টিং এর কারনঃ

  • সিনক্রোনাস মােটরের শ্যাফটে সহসা লােড কমলে, বাড়লে বা সরিয়ে নিলে অথবা অনবরত পরিবর্তনশীল লােড দিলে।
  • প্রাইম মুভারের স্পীড পরিবর্তন হলে।
  • সাপ্লাই ফ্রিকোয়েন্সি পরিবর্তনশীল হলে।
  • সিনক্রোনাস মােটর অতিশয় লম্বা ট্রান্সমিশন লাইনের সাথে যুক্ত থাকলে।

হান্টিং এর অসুবিধা

  • মােটরে কারেন্ট এবং পাওয়ার গ্রহণে প্রচুর পরিবর্তন হয়।
  • মােটরে যান্ত্রিক অংশে প্রচুর চাপ পড়ে ও ক্ষতি হয়, যেমনঃ- বিয়ারিং, শ্যাফট ও পুলি ইত্যাদি ক্ষয়, ঘর্ষণ বা ভেঙ্গে যেতে পারে।
  • মােটরের ওয়ান্ডিং পড়ে যেতে পারে।
  • অধিক হান্টিং এর কারণে মােটর বন্ধ হয়ে যেতে পারে

ডাম্পার ওয়াইন্ডিং কি

সিনক্রোনাস মােটরের সলিনয়েড পােল এর উপরিভাগে মােটা মােটা তামার তার আড়াআড়িতে খাজে বসানাে থাকে। এদের দু প্রান্ত কপার রিং বা তামার আংটা দ্বারা শর্ট করা থাকে যাকে ডাম্পার ওয়াইন্ডিং বলে। এদের প্রধান কাজ দুটি হলােঃ

  • প্রথমত সিনক্রোনাস মােটরকে ইন্ডাকশন মােটর হিসাবে চালু হতে সাহায্য করে।
  • দ্বিতীয়ত সিনক্রোনাস মােটরের হান্টিং এর মতাে ত্রুটিকে প্রশমিত করে ।

3 COMMENTS

  1. Bro pottekta post pdf koredile onek valo hoito

  2. New sub testing equipment ei somporke kicu janale khub upoker hoi

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here