সিঙ্গেল ফেজ ইন্ডাকশন মোটরের ইকুইভ্যালেন্ট সার্কিট

সিংগেল ফেইজ ইন্ডাকশন মোটরের ইকুইভ্যালেন্ট সার্কিট ব্যাখ্যা করার জন্য আমরা ২টি তত্ত্ব অবলম্বন করতে পারি। যথাঃ

  1. ডাবল রিভলভিং ফিল্ড থিওরি এবং
  2. ক্রস ফিল্ড থিওরি।

আমরা এই লেখায় ডাবল রিভলভিং ফিল্ড থিওরি থেকে আলোচনা করবো। তার আগে কিছু বিষয় সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

এয়ার-গ্যাপঃ স্ট্যাটর এবং রোটরের মধ্যকার দূরত্বকে এয়ার-গ্যাপ বলা হয়।

স্লিপঃ স্ট্যাটরের চৌম্বক ক্ষেত্রের গতিবেগ (Ns) এবং রোটরের গতিবেগের (NR) পার্থক্যকে স্লিপ বলা হয়। সিংগেল ফেইজ ইন্ডাকশন মোটরে রোটরের গতিবেগ সর্বদা স্ট্যাটরের চৌম্বক ক্ষেত্রের গতিবেগ অপেক্ষা কম হবে। একে S দ্বারা প্রকাশ করা হয়। এর মান সর্বনিম্ন ০ থেকে সর্বোচ্চ ১ পর্যন্ত হতে পারে।

S = (NS – NR) 100% / NS

এখানে,

NS = চৌম্বক ক্ষেত্রের গতিবেগ (R. P. M)।

NR = রোটরের গতিবেগ (R. P. M)।

ধরি, সিংগেল ফেইজ ইন্ডাকশন মোটরের স্ট্যাটরে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হচ্ছে কিন্তু রোটর ঘুরছে না। এই অবস্থাকে বলা হয় Stand Still Condition. এই ক্ষেত্রে মোটরকে অনেকটা সিঙ্গেল ফেইজ ট্রান্সফরমারের মত মনে হয় যার সেকেন্ডারী সাইড তার দিয়ে শর্ট করা। এর সার্কিট ডায়াগ্রামটি নিম্নে দেওয়া হল। (এখানে সহায়ক তার-কুন্ডলী বাদ দিয়ে শুধুমাত্র প্রধান তার-কুন্ডলী দেখানো হয়েছে।)

এখানে,

           I1 = স্ট্যাটর কারেন্ট

               R1 =স্ট্যাটর রেজিস্টেন্স

               X= স্ট্যাটর রিয়েক্টেন্স

               XM = ম্যাগ্নেটাইজিং রিয়েক্টেন্স

               I2 = রোটর কারেন্ট

               X2 = রোটর রিয়েক্টেন্স

               R2 = রোটর রেজিস্টেন্স

মোটরের পালসেটিং এয়ার-গ্যাপ ফ্লাক্সকে Forward এবং Reverse নামে ২ টি সমান কিন্তু বিপরীত চৌম্বক ক্ষেত্রে বিভক্ত করা যায়। অর্থাৎ ডাবল রিভলভিং ফিল্ড থিওরি অনুসারে রোটরের প্রতিটি উপাদান সমান এবং বিপরীত ২ ভাগে ভাগ হয়ে যাবে। ২ টি চৌম্বক ক্ষেত্রে একই পরিমাণ ভোল্টেজ ড্রপ হবে। এবং এই অবস্থায় মোটরেরে স্লিপ সর্বোচ্চ তথা ১

E1F = E1B

এখন সহায়ক তার-কুন্ডলীর মাধ্যমে মোটর স্টার্ট হবে। যখন মোটর তার সাধারণ গতিবেগ প্রাপ্ত হবে তখন এর সহায়ক তার-কুন্ডলীর সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়। এবং মোটর চলতে থাকে। মোটর যখন চলতে শুরু করে তখন স্লিপের মান কমে যায়। এবং এই অবস্থায় মোটর শুধুমাত্র প্রধান তার-কুন্ডলীর সাহায্যে চলতে থাকে। তখন সার্কিট ডায়াগ্রামটি হবে নিম্নরূপ।

এখানে R2 তথা রোটর রেজিস্টেন্সের সাথে স্লিপের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। থ্রি-ফেইজ ইন্ডাকশন মোটরের রোটর রেজিস্টেন্স 0.5R2 / S দ্বারা যে পরিমাণ শক্তি ব্যয় হয় তা এয়ার-গ্যাপ পাওয়ারের সমান। একইভাবে সিঙ্গেল ফেইজ ইন্ডাকশন মোটরের Forward এয়ার-গ্যাপ পাওয়ার 0.5R2 / S এর সমান এবং Reverse এয়ার-গ্যাপ পাওয়ার 0.5R2 / (2-S) এর সমান। Forward অংশের সকল চৌম্বক ক্ষেত্রের উপাদান গুলোর ইম্পিডেন্স যদি ZF হয়,

এর ফলে Forward অংশের সার্কিট ডায়াগ্রামকে আমরা এভাবে প্রকাশ করতে পারি,

ঠিক একই ভাবে Reverse অংশের সকল চৌম্বক ক্ষেত্রের উপাদান গুলোর ইম্পিডেন্স যদি ZB হয়,

তাহলে ZF  এবং ZB অনুসারে সিঙ্গেল ফেইজ ইন্ডাকশন মোটরের স্ট্যাটরে যে কারেন্ট প্রবাহিত হবে তার পরিমাণ হবে,

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here