কানেক্টেড লোড ও এভারেজ লোড | Connected Load & Average Load

কানেক্টেড লোড (Connected load):

সাপ্লাই সিস্টেমে সংযুক্ত সকল equipment বা সরঞ্জামের পাওয়ার (ওয়াট বা কিলোওয়াট) রেটিং-এর যোগফলকে কানেক্টেড লোড (Connected load) বা সংযোজিত লোড বলা হয়।

সাধারণত একটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র হাজার হাজার গ্রাহককে লোড সরবরাহ করে থাকে। প্রতিটি গ্রাহক তার প্রয়োজন অনুসারে নির্দিষ্ট সংখ্যক equipment ইনস্টল করে থাকে আর এই সকল গ্রাহকদের সমস্ত equipment -এর অবিচ্ছিন্ন রেটিংয়ের যোগফলই হলো কানেক্টেড লোড (Connected load)

উদাহরণস্বরূপ, যদি কোন গ্রাহক পাঁচটি ১০০ ওয়াট বাল্ব সংযোগ করে থাকে এবং ৫০০ ওয়াটের একটি ওয়াটার হিটার থাকে তাহলে, গ্রাহকের কানেক্টেড লোড বা সংযোজিত লোড হবে, (৫×১০০) + ৫০০ ওয়াট = ১০০০ ওয়াট।

এভারেজ লোড (Average load):

একটি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে নির্দিষ্ট সময়ে (দিন, মাস অথবা বছরে) উৎপাদিত লোডসমূহের গড় লোডকে এভারেজ লোড (Average load) বা গড় লোড বলে।

অর্থাৎ, দৈনিক লোড কার্ভে ব্যবহৃত মোট উৎপাদিত শক্তি (Generated power)-কে মোট সময় দ্বারা ভাগ করলে যে লোড পাওয়া যায় তাই এভারেজ লোড (Average load) বা গড় লোড।

load curve
একটি লোড কার্ভ

গানিতিকভাবে একে নিম্নোক্তভাবে প্রকাশ করা হয়ঃ
এভারেজ লোড = উৎপাদিত শক্তি (kWh) / মোট সময় (h)

এভারেজ লোডের বিভিন্ন রুপঃ

  • দৈনিক এভারেজ লোড = উৎপাদিত শক্তি (দৈনিক) / ২৪ ঘন্টা
  • মাসিক এভারেজ লোড = উৎপাদিত শক্তি (১ মাসের) / ১ মাসের মোট ঘন্টা
  • বার্ষিক এভারেজ লোড = উৎপাদিত শক্তি (১ বছরের) / ১ বছরের মোট ঘন্টা

অন্যান্য লেখাঃ

লোড কার্ভ সম্বন্ধে পড়ুন।

পাওয়ার প্ল্যান্ট ইঞ্জিনিয়ারিং সম্বন্ধে পড়ুন।

ইলেকট্রিক্যাল সাবস্টেশন সম্বন্ধে সহজ ভাষায় আলোচনা।

সাবস্টেশনের বিভিন্ন উপাদান সম্বন্ধে আলোচনা।

সহজ ভাষায় পাওয়ার ফ্যাক্টর নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও প্রশ্ন-উত্তর।

পাওয়ার ফ্যাক্টর ইমপ্রুভমেন্ট ও ক্যালকুলেশন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here