সাবস্টেশন ফ্যামিলির সদস্য CT এবং PT দুই ভাইয়ের গল্প

0
3443

সাবস্টেশন ফ্যামিলির সদস্যদের মধ্যে দুইজন সদস্য হল CT এবং PT যারা সম্পর্কে দুই ভাই রাম লক্ষণের মত। কম বেশি সবাই আমরা এই দুইভাই নিয়ে অবগত। তবুও আজ গল্পে গল্পে এই দুই ভাই নিয়ে আড্ডা জমাতে এসেছি।

CT হচ্ছে Current Transformer এবং PT হচ্ছে Potential Transformer।

CT ও PT এর কাজ কি ?

সাব-স্টেশন, জেনারেটিং স্টেশন, মিটারিং প্যানেলে, সার্কিট ব্রেকার ও রিলে আপারেশনে বহুল ব্যবহার করা হয়। আর একটু সহজ করে যদি বলি তাহলে হচ্ছে যে সমস্ত স্থানে উচ্চ ভোল্টেজ ও কারেন্ট পরিমাপ করার প্রয়োজন হয়, সেখানে CT ও PT এই দুই ভাই দারুণভাবে সাহায্য করে।

এখন হয়তো আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে কেন CT ও PT প্রয়োজনীয়, অ্যামিটার বা ভোল্টমিটার দিয়ে পরিমাপ করতে পারিনা?

এই প্রশ্নের উওর জানতে হলে CT ও PT দুই ভাই এর প্রয়োজনীয়তায় সম্পর্কে ভালভাবে জানা জরুরি।

CT ও PT কেন প্রয়োজনীয় ?

আমরা জানি, ট্রান্সমিশন লাইনে লক্ষ ভোল্টের বিদ্যুৎ সঞ্চালিত হয়। অ্যামিটার ও ভোল্টমিটার দিয়ে এই বিশাল কারেন্ট ও ভোল্টেজ পরিমাপ করা সম্ভব না। অ্যামিটার ও ভোল্টমিটার দিয়ে পরিমাপ করতে গেলে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।

যদি এমিটার ও ভোল্টমিটারের সাইজ বৃদ্ধি করা হয় তাহলে পরিমাপ করা যেতে পারে কিন্তু এটা ব্যয়বহুল ও ঝুকিপূর্ণ। তাই CT ও PT ব্যবহার করে কারেন্ট ও ভোল্টেজ পরিমাপ করা হয়।

করেন্ট ও ভোল্টেজের পরিমাপের উপর ভিওি করে CT ও PT বিভিন্ন সাইজের হয়ে থাকে। যেমন :

কারেন্ট ট্রান্সফরমার (CT)

  • Wound Type Current Transformer
  • Toroidal Current Transformer
  • Bar Type Current Transformer

পটেনশিয়াল ট্রান্সফরমার (PT)

  • Electromagnetic Types
  • Capacitor Types Collected

একটি সিটির মান 100/5A থেকে কি বুঝা যায়?

এই থেকে বুঝা যায়, প্রাইমারিতে ১০০ এম্পিয়ার কারেন্ট আছে তাহলে সেকেন্ডারিতে ৫ এম্পিয়ার আসবে এবং এর ট্রান্সফরমেশন রেশিও হবে ২০। CT ও PT সাধারনত দুই ভাই কারেন্ট ও ভোল্টেজের মান কমিয়ে তাদের পরিমাপ করে। কারেন্ট ট্রান্সফরমার (CT) একটি স্টেপ ডাউন ট্রান্সফরমার।

আমরা জানি ট্রান্সফরমারের দুটি কয়েল থাকে প্রাইমারি ও সেকেন্ডারি। CT এর সেকেন্ডারি কয়েলে একটি মেজারিং ডিভাইস থাকে যা কারেন্টের রেশিও পরিমাপ করে থাকে। তেমনি পটেনশিয়াল ট্রান্সফরমার (PT) এর প্রাইমারি কয়েলে পাক সংখ্যা বেশী ও সেকেন্ডারি কয়েলে পাক সংখ্যা কম থাকায়, সেকেন্ডারি কয়েলে ভোল্টেজ ইন্ডিউসড হয় কম, যা সহজেই পরিমাণ করা যায়।

কারেন্ট ট্রান্সফরমার

PT connection একটি পিটির রেটিং ৬৬কেভি/১১০ভোল্ট দিয়ে কি বুঝায়?

প্রাইমারিতে ৬৬ কেভি পাওয়া গেলে সেকেন্ডারিতে ১১০ ভোল্ট পাওয়া যাবে, যার ট্রান্সফর্মেশন রেশিও- ৬০০.

CT এবং PT
পটেনশিয়াল ট্রান্সফরমার
পটেনশিয়াল ট্রান্সফরমার

সিটি 5P 20 30VA দ্বারা কি বুঝায়?

5 দ্বারা বুঝায় সিটির অ্যাকুরেসির মান। P দ্বারা বুঝায় এটি একটি প্রটেক্টিভ সিটি। পরের ২০ সংখ্যাটি দ্বারা বুঝায়, সেকেন্ডারিতে প্রাইমারির ২০ গুন কারেন্ট গেলেও সেটা সিটি সেন্স করতে পারবে। একে অ্যাকুরেসি লিমিট ফ্যাক্টর বলে। এর দ্বারা ফল্ট কারেন্টের মানও বুঝায়।

আর 30VA দ্বারা সিটির বার্ডেন বুঝায়, সেকেন্ডারিতে কানেক্টেড থাকা সর্বোচ্চ লোডকেই বার্ডেন বলে, যা প্রাইমারি থেকে সেকেন্ডারিকে আলাদা করে রাখে।

সিটি পিটি তে কোন রিলে ব্যবহার করা হয়?

সিটি পিটি ভাইরা যে সমস্ত রিলে ব্যবহার করে সেগুলো হলঃ

IDMT (Inverse Definite Minimum Time) Relay

DIFFERENTIAL TIME RELAY

DIRECTIONAL RELAY

সিটি ভাইয়ার সেকেন্ডারি অংশ খোলা রাখা যায় না কেন?

সিটি ভাইয়ার সাধারণ অবস্থায় লেনজের সূত্র অনুযায়ী প্রাইমারী ও সেকেন্ডারি উইন্ডিং এ ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স তৈরি করে ও একে অপরকে বাধা প্রদান করে। সেকেন্ডারি ফ্লাক্স প্রাইমারী ম্যাগনেটিক ফ্লাক্সের চেয়ে কম ও নেট ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স অনেক কম হয়ে থাকে। এই নেট ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স Current ট্রান্সফরমারের কোরে কাজ করে থাকে। যখন সিটির সেকেন্ডারি উইন্ডিং ওপেন রাখা হয় তখন সেকেন্ডারি কারেন্ট শূন্য হবে যেখানে সিটির প্রাইমারী Current একই রয়ে যাবে। এক্ষেত্রে সেকেন্ডারিতে কোন বাধা প্রদানকারী ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স থাকবে না।

একারনে শুধুমাত্র প্রাইমারী Current জন্য নেট ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স অনেক বেশি থাকে। এই বেশি ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স কোরে অনেক বেশি ফ্লাক্স তৈরি করবে যা কোরকে স্যাচুরেশন লেভেলে নিয়ে যাবে। কোরে অনেক বেশি ম্যাগনেটিক ফ্লাক্সের কারণে সেকেন্ডারি উইন্ডিং এ ফ্লাক্স লিংকেজ অনেক বেশি হবে যা সিটির সেকেন্ডারি টার্মিনালে অনেক বেশি ভোল্টেজ উৎপন্ন করবে। এই অনেক বেশি পরিমানের ভোল্টেজ সেকেন্ডারি টার্মিনালের জন্য অনেক ক্ষতিকর এবং তার ফলে ইন্সুলেশন ফেইল করবে ও দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।

ব্যাপারটা অনেকটা এরকম যে দুই পাল্লার মধ্যে যেকোন এক পাল্লায় প্রচুর বাটখারা রাখা হল এবং অন্য পাল্লা একদম খালি। তাহলে দাড়িপাল্লা ভারসাম্য হারিয়ে ফেলবে এবং অন্য পাল্লার বাটখারা পায়ে পড়ে গিয়ে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।

সিটি এবং পিটি দুই ভাইয়ের মধ্যে কিছু পার্থক্য

একটি কারেন্ট ট্রান্সফরমার (সিটি) পরিমাপ, নিয়ন্ত্রণ এবং সুরক্ষা উদ্দেশ্যে কারেন্ট সিগন্যাল হ্রাস করতে ব্যবহৃত হয়। আর একটি পটেনশিয়াল ট্রান্সফরমার (পিটি) উচ্চমানের ভোল্টেজ কমাতে এবং উচ্চ ভোল্টেজ পাওয়ার নেটওয়ার্ক, সংযুক্ত অন্যান্য যন্ত্রগুলির মধ্যে বিচ্ছিন্নতা প্রদানের জন্য ব্যবহৃত হয়।

সিটি উচ্চ কারেন্ট পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয় এবং পিটি উচ্চভোল্টেজ পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।

ট্রান্সফরমার নিয়ে আরো কিছু পোস্ট

ট্রান্সফরমারের ইন্সুলেশন টেস্ট সম্পর্কে সহজ ভাষায় আলোচনা

সিংগেল ফেজ ট্রান্সফরমার ব্যাংকিং সিস্টেম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here