এমিটারকে ভোল্টমিটারে রুপান্তর করার পদ্ধতি

এমিটার এবং ভোল্টমিটারকে চেনে না এমন লোক ইঞ্জিনিয়ারিং জগতে খুঁজে পাওয়াই মুশকিল। আমরা সবাই জানি যে, এমিটারের সাহায্যে কারেন্ট এবং ভোল্টমিটারের সাহয্যে ভোল্টেজ পরিমাপ করা যায়। আর এমিটারকে কারেন্ট পরিমাপের সময় সিরিজে এবং ভোল্টমিটারকে প্যারালালে সংযুক্ত করতে হবে।

এমিটার

এমিটারের অভ্যন্তরীণ রোধ খুব নগণ্য। তাই তাকে যদি বর্তনীর সাথে প্যারালালে রাখা হয় তখন সেটা শর্ট সার্কিট এর ন্যায় আচরণ করে। কিভাবে আচরণ করে এটাই এখন জানবো। এমিটারের অভ্যন্তরীণ রোধ শূন্যের কাছাকাছি। আর তাকে যদি কোন লোড ( রোধ) এর সাথে প্যারালালে লাগানো হয় তাহলে মোট রোধ দাঁড়ায়, 0 ।। R (Load) = 0।

আর আমরা জানি, short circuit এর রোধ শূন্যের কাছাকাছি। ফলে, কারেন্ট তো পরিমাপ করা যাবেই না বরং সার্কিটের ক্ষতি। কিন্তু সিরিজে দিলে তা দাঁড়ায় 0 + R = R। তখন, লোড কারেন্টটাই আমার এমিটারে দেখাবে।

ভোল্টমিটার

এবার, আসা যাক ভোল্টমিটারকে লোডের প্যারালালে সংযুক্ত করার কারণ কি?

ভোল্টমিটারের রোধ খুব বেশি। অসীমের কাছাকাছি। তাই তাকে প্যারালালে না লাগিয়ে যদি সিরিজে লাগাই তাহলে পুরা ভোল্টেজটাই সে খেয়ে নিবে। তাই লোডের across এ পারফেক্ট ভোল্টেজ পাবনা। তাই প্যারালাল এ কানেকশন করা হয়। যেহেতু রোধ যাই হোক না কেন প্যারালালে ভোল্টেজ ড্রপ একই থাকে। তাই লোড / রেজিস্টর যে ভোল্টেজ পাবে ভোল্টমিটারও তা দেখাবে।

এমিটার ভোল্টমিটার কানেকশন
এমিটার ভোল্টমিটার কানেকশন

এবার আসা যাক মজার প্রশ্নে, এমিটারকে ভোল্টমিটারে রুপান্তরিত করে ভোল্টেজ পরিমাপ করা যাবে কি?

এমিটারকে ভোল্টমিটারে রুপান্তর

এমিটারকে অবশ্যই ভোল্টমিটারে রুপান্তর করা যাবে। আর এই কাজটি খুবই সহজ। কিন্তু সেটা কিভাবে তা নিয়ে আড্ডা হবে আজ। আমি আগেই বলেছি এমিটারের অভ্যন্তরীণ রোধ খুব ই নগণ্য বা শূন্যের কাছাকাছি। তার মানে তার পথটি খুব মসৃণ।

আর পক্ষান্তরে ভোল্টমিটারের রোধ অনেক বেশি যেটা আমরা অসীম বলে বিবেচনা করি। অসীম বলা হলেও এই রোধের একটি নির্দিষ্ট মান থাকে যা খুব উচ্চমানের হয়ে থাকে। তাহলে অসীম বলা হল কেন? ধরুন, যারা খুব বেশি খেতে পারে আমরা তাদের রাক্ষস বলে থাকি।

রাক্ষস হলেও তাদের খাওয়ার একটা ক্যাপাসিটি থেকেই যায় যা অন্যান্যদের তুলনায় অনেক বেশি। তাহলে এমিটারকে ভোল্টমিটারে রুপান্তর করতে হলে তার রোধের মানও অনেক বেশি হতে হবে। তাই এমিটারের সাথে একটি উচ্চমানের রোধ সংযুক্ত করতে হবে।

এমিটারকে ভোল্টমিটারে রুপান্তর
এমিটারকে ভোল্টমিটারে পরিবর্তন

সংযোগ কি সিরিজে নাকি প্যারালালে হবে?

এবার আসা যাক মূল্যবান প্রশ্নে যে, উচ্চমানের রোধের সংযোগ কি সিরিজে নাকি প্যারালালে হবে? আগেই বলা হয়েছে এমিটারের রোধ প্রায় শূন্য। হিসেবের সুবিধার্থে ধরেই নিলাম শূন্য। ধরি “Q” মানের উচ্চরোধ তার সাথে প্যারালালে সংযুক্ত করা হবে। তাহলে মোট রোধ হবে, Q*0/Q+0 = 0 ohms। তার মানে যে লাউ সেই কদুই থাকল।

এবার যদি রোধটিকে সিরিজে সংযুক্ত করি তাহলে মোট রোধ দাঁড়ায়, Q+0 = Q ohms। তাই উচ্চমানের রোধটিকে আমরা এমিটারের সাথে সিরিজেই যুক্ত করব।

ভাইবা বোর্ডে অনেক সময় এই প্রশ্নটি করা হয়। ফলে অনেকেই বিপাকে পড়ে যায় যে কিভাবে উত্তর করবে। বিপাকে পড়ার কিছুই নেই। এক কথায় বলবেন, এমিটারের সাথে উচ্চমানের রোধকে সিরিজে যুক্ত করে ভোল্ট স্কেলে পাঠ নিলেই হবে।

Voltage-Current নিয়ে কিছু মজার পোস্ট

ভোল্টেজ এবং কারেন্ট নিয়ে কিছু মজার এবং বিচিত্র প্রশ্ন

ভোল্টেজ এবং কারেন্ট নিয়ে কনফিউশন? ভোল্টেজ ও কারেন্ট গল্পের ছলে পড়ে নিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here