সার্কিট ব্রেকার পর্ব-১ (সার্কিট ব্রেকার কি, কিভাবে কাজ করে, গঠন, প্রকারভেদ)

0
1842
সার্কিট ব্রেকার কি

সার্কিট ব্রেকার নাম আমরা কম বেশি সবাই শুনেছি এবং দেখেছি। আমরা জানি সার্কিট ব্রেকার কতটা গুরুত্বপূর্ণ জিনিশ যা ইলেকট্রনিকস যন্ত্রপাতিকে রক্ষা করে থাকে।

সার্কিট ব্রেকারের গঠন, কিভাবে কাজ করে তা আমরা অনেকেই জানি না। আজকে আমরা এই বিষয়গুলো নিয়ে বিস্তারিত জানবো। তাহলে চলুন দেখি কি কি বিষয় থাকবে আজকের লেখাতে।

  1. সার্কিট ব্রেকার কি বা কাকে বলে?
  2. সার্কিট ব্রেকার কি কি কাজ করে থাকে?
  3. সার্কিট ব্রেকারের প্রকারভেদ।
  4. সার্কিট ব্রেকারের গঠন প্রণালী।
  5. সার্কিট ব্রেকার কিভাবে কাজ করে থাকে।

সার্কিট ব্রেকার কি বা কাকে বলে? 

সহজ ভাষায় বলতে গেলে সার্কিট ব্রেকার একটি স্বয়ংক্রিয় যন্ত্র যা নিরাপত্তা প্রদান করে থাকে। অর্থাৎ এটি এমন একটি ডিভাইস যা ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিকস যন্ত্রপাতিকে নিরাপদ রাখে। যখন লাইনে অতিরিক্ত পরিমান বিদ্যুৎ প্রবাহ হয় তখন (যন্ত্রপাতিতে) যেকোন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে যা সার্কিট ব্রেকার রক্ষা করে থাকে।

অর্থাৎ সার্কিট ব্রেকার এমন এক ধরনের যন্ত্র যা একটি সার্কিট কে খুলে বা বন্ধ করে দিতে পারে সব কন্ডিশনে (নো-লোড কন্ডিশন, ফুল লোড কন্ডিশন এবং ফল্টি বা ত্রুটিপূর্ণ কন্ডিশনে)।

অন্যভাবে বলতে গেলে, সার্কিট ব্রেকার এমন একটি যন্ত্র যা ত্রুটিপূর্ণ লাইনকে আপনা আপনি বা স্বয়ংক্রিয় ভাবে সোর্স হতে বিচ্ছিন্ন করে থাকে।

সার্কিট ব্রেকার কি কাজ করে থাকে?

কোন সার্কিটে ডিজাইন ভোল্টেজের চেয়ে বেশি ভোল্টেজ আসলে সার্কিট ব্রেকার তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সার্কিটকে রক্ষা করে থাকে।

  • এসি লাইনে শর্ট সার্কিট ঘটলে (লাইন টু লাইন বা লাইন টু নিউট্রাল)।
  • অতিরিক্ত লোড থাকলে।
  • ভোল্টেজ বেড়ে গেলে।

সার্কিট ব্রেকারের প্রকারভেদ

আর্ক বা অগ্নি নির্বাপনের উপর ভিত্তি করে
  1. ওয়েল সার্কিট ব্রেকার।
  2. এয়ার সার্কিট ব্রেকার।
  3. সালফার হেক্সাফ্লোরাইড সার্কিট ব্রেকার।
  4. ভ্যাকুয়াম সার্কিট ব্রেকার।
সার্ভিসের উপর ভিত্তি করে
  1. আউটডোর সার্কিট ব্রেকার।
  2. ইনডোর সার্কিট ব্রেকার।
অপারেটিং মেকানিজমের উপর ভিত্তি করে
  1. স্প্রিং অপারেটেড সার্কিট ব্রেকার।
  2. নিউমেটিক সার্কিট ব্রেকার।
  3. হাইড্রো-ইলেক্ট্রিক সার্কিট ব্রেকার।
ভোল্টেজ লেবেল ইনস্টলেশনের উপর ভিত্তি করে
  1. হাই ভোল্টেজ সার্কিট ব্রেকার
  2. মেডিয়াম ভোল্টেজ সার্কিট ব্রেকার
  3. লো-ভোল্টেজ সার্কিট ব্রেকার
এছাড়া নিম্মলিখিত ভাবে ভাগ করা যায়
  • ম্যাগ্নেটিক সার্কিট ব্রেকার।
  • কমন ট্রিপ সার্কিট ব্রেকার।
  • থার্মাল সার্কিট ব্রেকার।
  • ডিসকানেক্টিং সার্কিট ব্রেকার।
  • কার্বন ডাই-অক্সাইড সার্কিট ব্রেকার।

এছাড়া অন্যান্য।

সার্কিট ব্রেকারের গঠন প্রণালী ও কার্যপ্রনালী

সার্কিট ব্রেকার মূলত দুটি প্রধান অংশ নিয়ে গঠিত।

  1. ফিক্সড কন্টাক্ট।
  2. মুভিং কন্টাক্ট।

আমরা বাসা-বাড়িতে সাধারনত MCB-Miniature Circuit Breaker ব্যবহার করে থাকি। তারই প্রেক্ষিতে নিচে মিনিয়েচার সার্কিট ব্রেকারের ছবি নিচে দেওয়া হয়েছে।

এটি বাসা বাড়িতে বহুল ব্যবহিত একটি সার্কিট ব্রেকার। চিত্রে অপারেটিং লেভেল, আর্ক স্প্লিটার, মুভিং কন্টাক্ট, ফিক্সড কন্টাক্ট, ট্রিপ কয়েল ইত্যাদি।

কার্যপ্রনালী:

সার্কিট ব্রেকারের কিছু বেসিক সাধারন কার্যপ্রনালী উল্লেখ করা হলো।

  • স্বাভাবিক অবস্থায় সার্কিট ব্রেকার ম্যানুয়ালি (রিমুট কন্ট্রোল বা অন্যান্য) অপারেট করা হয়ে থাকে।
  • ত্রুটিপূর্ণ অবস্থায় সার্কিট ব্রেকার স্বয়ংক্রিয় ভাবে অপারেট করে।
  • স্বাভাবিক অবস্থায়  মুভিং এবং ফিক্সড কন্টাক্ট একই কন্টাক্টে থাকে এবং সার্কিটের মধ্যেদিয়ে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হয়ে থাকে।
  • সিটি এবং রিলে উভয়ই স্বয়ংক্রিয় বাধার জন্য কাজ করে থাকে।
সার্কিট ব্রেকার কি
সার্কিট ব্রেকারের চিত্র

কাজের ধাপ

  • যখন লাইনে ডিজাইন কারেন্টের চেয়ে বেশি কারেন্ট প্রবাহিত হবে(অতিরিক্ত কারেন্ট ফল্টজনিত কারনে) তখন কারেন্ট ট্রান্সফরমার (সিটি) অতিরিক্ত কারেন্টকে কমিয়ে রিলে কয়েলে প্রেরন করবে।
  • রিলে কয়েলে যখন পিক কারেন্ট (নির্দিস্ট কারেন্টের চেয়ে বেশি কারেন্ট) ঘটে তখন রিলে কয়েল এক্টিভ হয় এবং রিলের মুভিং কন্টাক্ট সার্কিটকে বন্ধ করে।
  • তখনি ট্রিপ সার্কিটের ব্যাটারি সোর্সের মাধ্যমে ট্রিপ কয়েল এনার্জিড হয় এবং কন্টাক্টকে ব্রেক করে থাকে।

সার্কিট ব্রেকার পর্ব-২ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

আজ এই পর্যন্ত বন্ধুরা। আপনাদের যেকোন ধরনের প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করবেন। আশা করি সঠিক সময়ে উত্তর দিতে পারবো।

ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY