বৈদ্যুতিক বর্তনীর মধুর রোমাঞ্চকর গল্প

0
607

ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এ সবচেয়ে সহজ প্রশ্ন হল, “বৈদ্যুতিক বর্তনী কাকে বলে?”। আর সহজ প্রশ্নের অতি সহজ উত্তর হল, বিদ্যুৎ চলাচলের সম্পূর্ণ পথকেই বলে বৈদ্যুতিক বর্তনী। কিন্তু আজ এই বৈদ্যুতিক বর্তনীকে একটু ভিন্নভাবে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব। আজ তুলে ধরব বৈদ্যুতিক বর্তনীর একটি রোমাঞ্চকর গল্প। চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

বৈদ্যুতিক বর্তনীর মধুর রোমাঞ্চকর গল্প

একটি বৈদ্যুতিক বর্তনী পূর্ণ করতে কি কি লাগে? একটি বৈদ্যুতিক বর্তনী সম্পূর্ণ করতে তিনটি জিনিসের প্রয়োজন। যথাক্রমেঃ

  • সোর্স (ব্যাটারি/জেনারেটর)
  • লোড
  • গ্রাউন্ড/নিউট্রাল

এই তিনটি উপকরণের মাধ্যমে তৈরি হয় একটি পরিপূর্ণ বর্তনী। সোর্স ছাড়া লোড অপূর্ণ আবার লোড ছাড়া সোর্স অপূর্ণ। অনেকটা সহধর্মীনির ন্যায়। তাই লোড এবং সোর্স অপরকে ছাড়া চলতে পারেনা। একে অপরকে খুবই ভালবাসে। সোর্স লোডকে পেলেই শুরু হয়ে যায় পেয়ার/মহব্বত। আর এই মহব্বতের পরিণতি হয় বিয়েতে বা গ্রাউন্ডে/নিউট্রালে। কি মধুর ভালবাসা তাইনা?

লোড ও সোর্সের প্রেম
লোড ও সোর্সের প্রেম

যখন সোর্স তার প্রিয় লোডকে পায়না তখন কি ঘটে?

বিভিন্ন নাটক বা মুভিতে আমরা কি দেখি? প্রেমিকা যখন তার প্রেমিকাকে জয় করতে পারেনা তখন সে ডিপ্রেশনে চলে যায়। অগ্নিকান্ড ঘটিয়ে দেয়। ভূল পদক্ষেপ নেয়। ইলেকট্রিক্যালের ভাষায় যাকে বলা হয় শর্ট সার্কিট। ব্যাপারটা আরো রসালোভাবে উপস্থাপন করা যাক।

ধরেন, কোন একটি ছেলে একটি মেয়েকে ভালবাসল। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসের কারণে ছেলে এবং মেয়েটির সম্পর্ক শেষমেষ বিয়ে অব্দি গড়াল না। ছেলেটি মেয়েটিকে তার জীবন থেকে হারিয়ে ফেলল। এখন মেয়েটির বিয়ে অন্য কারো সাথে হয়ে গেল। ফলাফলে মেয়েটি নিজের জীবন বিসর্জন দিল।

এবার ব্যাপারখানাকে বিদ্যুৎ প্রকৌশলের ভাষায় উপস্থাপন করা যাক। যদি আমরা সোর্সকে আমরা প্রেমিকা, লোডকে প্রেমিক এবং গ্রাউন্ডকে মেয়েটির হাসবেন্ড হিসেবে কল্পনা করে নিচের চিত্রটি আঁকতে পারি।

শর্ট সার্কিট
শর্ট সার্কিট

এখানে, দেখা যাচ্ছে সোর্স গ্রাউন্ডের সাথে কোন লোড ছাড়াই সরাসরি সংযুক্ত। আর এই কন্ডিশনকেই বলা হয় শর্ট সার্কিট। আর শর্ট সার্কিট মানেই অতিরিক্ত কারেন্ট প্রবাহ এবং অগ্নিকান্ড। যেমনটা প্রেমিককে (লোড) না পেয়ে প্রেমিকা (সোর্স) ঘটিয়েছিল।

কি মজার না? আসলে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর মধ্যে ভীষণ রোমান্টিকতা লুকিয়ে আছে। কিন্তু গদবাধা পড়ালেখা দিয়ে সেটাকে আমরা উপভোগ করতে পারবনা। আর সেজন্যই ভোল্টেজ ল্যাব নিত্য নতুন আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাদের নতুনত্বের স্বাদ দিতে চায়।

ওপেন সার্কিট এবং ব্রেক আপের গল্প

লোড এবং সোর্সের সংযোগবিহীন সার্কিট যেখানে বিদ্যুৎ প্রবাহ ঘটেনা তাকেই ওপেন সার্কিট বলে। এটা থিওরি। এই থিওরিকে এখন আমরা আবার একটি বিচ্ছেদ বা ব্রেকআপের গল্পের মাধ্যমে বুঝে নিব।

এই কন্ডিশনে প্রেমিক প্রেমিকা উভইয়েই এক আরেকজনের সম্মতিতে একজন অন্যজনের লাইফ থেকে সরে যায়। সার্কিটে দুজন পড়ে থাকলেও কারো জন্য কারোর গুরুত্ব নেই। এজন্য দেখা যায় ওপেন সার্কিটে রোধ থাকলেও এতে ভোল্টেজ ড্রপ হয়না। কি চমৎকার মিল বাস্তবজীবনের সাথে এই সার্কিটের।

এভাবে রোমাঞ্চকর গল্পের মাধ্যমে আমরা ওপেন এবং শর্ট সার্কিটের পরিচিতি খুব সহজেই তুলে ধরতে পারি। আর এভাবে পড়লে বিষয়গুলোকে খুব সহজে মনেও থাকে।

ওপেন সার্কিট
ওপেন সার্কিট

আরো কিছু আর্টিকেল পড়ুন

সিরিজ-প্যারালাল সার্কিট নিয়ে ধাঁধার সহজ সমাধান | Series-Parallel Circuit

ভোল্টেজ এবং কারেন্ট নিয়ে কনফিউশন? ভোল্টেজ ও কারেন্ট গল্পের ছলে পড়ে নিন

গল্পে গল্পে ইলেকট্রনের তাড়নবেগ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here