ডিসক্রিট টাইম সিগন্যাল | Discrete Time Signal

ডিসক্রিট টাইম সিগন্যাল

ডিসক্রিট টাইম সিগন্যাল – যে সিগন্যাল একটি নির্দিষ্ট সময় পর পর পাওয়া যায় অর্থাৎ যে সিগন্যালের কতোগুলো specific value কতগুলো specific টাইমে পাওয়া যায় তাকে ডিসক্রিট টাইম সিগন্যাল বলে।

ডিসক্রিট টাইম সিগন্যাল
চিত্র ১ঃ Analog Signal
ডিসক্রিট টাইম সিগন্যাল
চিত্র ২ঃ Discrete Time Signal

Analog সিগন্যালে আমরা যে কোনো মুহূর্তের সিগন্যালের value continuously পেতে পারি। কিন্তু ডিসক্রিট টাইম সিগন্যালে আমরা যেকোনো মুহূর্তের সিগন্যালের value পাই না।

চিত্র-২ , Analog সিগন্যালকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে বিভক্ত করা হয়েছে। এই ক্ষুদ্র অংশ সিগন্যাল বিভক্ত করাকে Sampling বলে।

0 থেকে ১০০ সেকেন্ডের এর ভিতর ১০টি অংশে বিভক্ত করা হয়েছে। সুতরাং, এক একটি ঘরের মান ১০। আমরা ১০ সেকেন্ড পর পর সিগন্যালের একটি specific value পাবো। অনুরূপভাবে, ২০,৩০,৪০…………১০০ সেকেন্ডের জন্য সিগন্যালের specific value পাবো। কিন্তু ১ থেকে ৯ সেকেন্ড অথবা ১১ থেকে ১৯ সেকেন্ড অথবা ২১ থেকে ২৯ সেকেন্ডের ভিতর আমরা সিগন্যালের কোনো specific value জানি না।

আবার, চিত্র-১ থেকে: ০ থেকে ১০ সেকেন্ড বা ১০ থেকে ২০ সেকেন্ডে……………….১০০ সেকেন্ড প্রত্যেক মুহূর্তের জন্য অর্থাৎ আমরা continuously সিগন্যালের specific value পেতে পারি যা চিত্র ২ হতে পাওয়া যায় না। চিত্র ২ হতে আমরা নির্দিষ্ট সময় পর পর অর্থাৎ ডিসক্রিটভাবে সিগন্যালের specific value পাই।

তাই বলা যায়,

  • ডিসক্রিট টাইম সিগন্যালে কতোগুলো specific value কতগুলো specific টাইমে পাওয়া যায়।
  • ডিসক্রিট টাইম সিগন্যালে টাইম ডিসক্রিট থাকে কিন্তু Amplitude (বিস্তার) একই (constant) থাকে। উদাহরনস্বরূপ চিত্র-১ এবং চিত্র-২ এ Analog Signal এবং Discrete Time Signal এ ১০ বা ২০ সেকেন্ডে একই রকম বিস্তারের (Amplitude) এর মান পাওয়া যায়।
  • প্রতিটা ডিসক্রিট টাইম সিগন্যাল হচ্ছে Analog Signal এর উপসেট। কারন ডিসক্রিট টাইম সিগন্যালের Physical Quantity এর প্রতিটা পয়েন্টকে যোগ করলে আমরা Analog Signal পাবো (চিত্র-৩)
ডিসক্রিট টাইম সিগন্যাল
চিত্র ৩

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here